বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কমএক ছবিতেই ভোলায় তোলপাড়! - বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম
শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৮, , সন্ধ্যা ৭:২৮

প্রকাশিতঃ আগস্ট ০৫, ২০১৬ ২:৪২ পূর্বাহ্ণ
A- A A+ Print

এক ছবিতেই ভোলায় তোলপাড়!

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্কুল ড্রেস পরা ৫ জন ছাত্রী সড়কের পাশে পড়ে আছে। দুই ছাত্রী হেটে যাচ্ছে। পড়ে থাকা ছাত্রীদের মুখ ওড়না দিয়ে ঢাকা। এই একটি ছবি নিয়ে এখন তোলপাড় শুরু হয়েছে ভোলায়।ছবিটি দেখার পরে ভোলার বোরহানউদ্দীনের প্রশাসন থেকে শুরু করে সবার মাঝে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ছবি ও লেখা পোস্ট করেছেন ফয়ছাল হোসেন বাপ্পি নামে এক ব্যক্তি। জার্নালিস্ট মেহেদি নামে একটি ফেসবুক আইডি দিয়ে আবার শেয়ার করা হয়েছে ১৬ ঘন্টা আগে। ছবির নিচে লেখা এভাবে “পশুত্বের রাজত্ব চলছেই। এই পশুত্বের রাজত্ব থামার নয়।  গত  ২৭ জুলাই   সকাল সাড়ে এগারোটায় একদল মুখোশ পরা জানোয়ার,  ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন থানার, আব্দুল জব্বার মহাবিদ্যালয়ের ৭ ছাত্রীকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে ধর্ষন করে।অতঃপর তাদের দুই জনকে হত্যা করে।বাকি ৫ জন বর্তমানে অসুস্হ অবস্হায় স্হানীয় বোরহান উদ্দিন মেডিকেলে ভর্তি আছে। কী হল এই সমাজটার? নিরাপত্তা কোথায়? দেশ জুড়ে একের পর এক ধর্ষন,খুন চলছেই”।তবে লেখা ও ছবি দেখার পরে সকলের মধ্যেই সন্দেহ দেখা দেয়। এটা যে একটি বানানো ঘটনা তা বোঝা যায় ছবি ও লেখা দেখেই। কারন একটি স্কুলের ৭ স্কুল ছাত্রীকে দিনে দুপুরে জোর করে তুলে নিয়ে ধর্ষন। আবার দু,জনকে হত্যা। এরকম হলো শুধু বাংলাদেশে নয় পুরো বিশ্ব মিডিয়ায় উঠে আসতো। বোরহানউদ্দীনে কর্মরত সাংবাদিক আকরাম হোসেন জানান তার কাছে বেশ কয়েকজন ফোন করে জানতে চেয়েছেন এ ধরনের কিছু ঘটছে কিনা। আমি খোঁজ নিয়ে দেখেছি এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। তাছাড়া এত বড় একটা ঘটনা ঘটলেতো তোলপাড় হয়ে যেতো। বোরহানউদ্দীন থানার ওসি রতন কৃষ্ণ রায় বলেন এ ধরনের খবর বানোয়াট। ফেসবুকে এ রকম লিখে দেশের মানুষকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। এ ধরনের ঘটনা হলে আমরা কেন পুরো বিশ্ববাসীর কাছে মুহুর্তের মধ্যে খবর চলে যেতো। ভোলার এক সাংবাদিক জানান ছবি দেখে মনে হচ্ছে কোন সড়ক দুর্ঘটনায় বেশ কয়েকজন ছাত্রী সড়কের পাশে পড়ে আছে। ওই ছবি ব্যবহার করেই এ ধরনের ভুয়া লেখা দিয়ে ফেসবুকে ছাড়া হয়েছে। বোরহানউদ্দীন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন এ ধরনের কোন স্কুল ছাত্রী এখানে ভর্তি হয়নি।

সূত্রঃসাউথ ভয়েস

 বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম

এক ছবিতেই ভোলায় তোলপাড়!

শুক্রবার, আগস্ট ৫, ২০১৬ ২:৪২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্কুল ড্রেস পরা ৫ জন ছাত্রী সড়কের পাশে পড়ে আছে। দুই ছাত্রী হেটে যাচ্ছে। পড়ে থাকা ছাত্রীদের মুখ ওড়না দিয়ে ঢাকা। এই একটি ছবি নিয়ে এখন তোলপাড় শুরু হয়েছে ভোলায়।ছবিটি দেখার পরে ভোলার বোরহানউদ্দীনের প্রশাসন থেকে শুরু করে সবার মাঝে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ছবি ও লেখা পোস্ট করেছেন ফয়ছাল হোসেন বাপ্পি নামে এক ব্যক্তি। জার্নালিস্ট মেহেদি নামে একটি ফেসবুক আইডি দিয়ে আবার শেয়ার করা হয়েছে ১৬ ঘন্টা আগে। ছবির নিচে লেখা এভাবে “পশুত্বের রাজত্ব চলছেই। এই পশুত্বের রাজত্ব থামার নয়।  গত  ২৭ জুলাই   সকাল সাড়ে এগারোটায় একদল মুখোশ পরা জানোয়ার,  ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন থানার, আব্দুল জব্বার মহাবিদ্যালয়ের ৭ ছাত্রীকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে ধর্ষন করে।অতঃপর তাদের দুই জনকে হত্যা করে।বাকি ৫ জন বর্তমানে অসুস্হ অবস্হায় স্হানীয় বোরহান উদ্দিন মেডিকেলে ভর্তি আছে। কী হল এই সমাজটার? নিরাপত্তা কোথায়? দেশ জুড়ে একের পর এক ধর্ষন,খুন চলছেই”।তবে লেখা ও ছবি দেখার পরে সকলের মধ্যেই সন্দেহ দেখা দেয়। এটা যে একটি বানানো ঘটনা তা বোঝা যায় ছবি ও লেখা দেখেই। কারন একটি স্কুলের ৭ স্কুল ছাত্রীকে দিনে দুপুরে জোর করে তুলে নিয়ে ধর্ষন। আবার দু,জনকে হত্যা। এরকম হলো শুধু বাংলাদেশে নয় পুরো বিশ্ব মিডিয়ায় উঠে আসতো। বোরহানউদ্দীনে কর্মরত সাংবাদিক আকরাম হোসেন জানান তার কাছে বেশ কয়েকজন ফোন করে জানতে চেয়েছেন এ ধরনের কিছু ঘটছে কিনা। আমি খোঁজ নিয়ে দেখেছি এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। তাছাড়া এত বড় একটা ঘটনা ঘটলেতো তোলপাড় হয়ে যেতো। বোরহানউদ্দীন থানার ওসি রতন কৃষ্ণ রায় বলেন এ ধরনের খবর বানোয়াট। ফেসবুকে এ রকম লিখে দেশের মানুষকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। এ ধরনের ঘটনা হলে আমরা কেন পুরো বিশ্ববাসীর কাছে মুহুর্তের মধ্যে খবর চলে যেতো। ভোলার এক সাংবাদিক জানান ছবি দেখে মনে হচ্ছে কোন সড়ক দুর্ঘটনায় বেশ কয়েকজন ছাত্রী সড়কের পাশে পড়ে আছে। ওই ছবি ব্যবহার করেই এ ধরনের ভুয়া লেখা দিয়ে ফেসবুকে ছাড়া হয়েছে। বোরহানউদ্দীন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন এ ধরনের কোন স্কুল ছাত্রী এখানে ভর্তি হয়নি।

সূত্রঃসাউথ ভয়েস

সম্পাদক ও প্রকাশক : খন্দকার রাকিব ।
ফকির বাড়ি, ৫৫৪৫৪ বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭২২৩৩৬০২১
ইমেইল : rakibulbsl@gmail.com, barisalcrimenews@gmail.com