বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কমবরিশালে সাংবাদিককে তুলে নিয়ে হত্যাচেষ্টা- পুলিশের ৮ সদস্য ক্লোজড (আপডেট) - বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম
বৃহস্পতিবার, ২১ জুন, ২০১৮, ৭ আষাঢ়, ১৪২৫, ৮ শাওয়াল, ১৪৩৯, সকাল ১০:৪৭

প্রকাশিতঃ মার্চ ১৩, ২০১৮ ৯:১৯ অপরাহ্ণ
A- A A+ Print

বরিশালে সাংবাদিককে তুলে নিয়ে হত্যাচেষ্টা- পুলিশের ৮ সদস্য ক্লোজড (আপডেট)

বরিশালে বেসরকারি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের ক্যামেরাপারসনকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের ঘটনায় ৮ পুলিশ সদস্যকে ক্লোজড করা হয়েছে। পাশাপাশি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তে কমিটি গঠন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি) নাছির উদ্দিন মল্লিক।

তিনি জানান, পুরো বিষয়টি তাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ খতিয়ে দেখছেন। সাংবাদিককে নির্যাতনের ঘটনায় ডিবি পুলিশের টিমে থাকা এসআই আবুল বাশারসহ ২ এএসআই আক্তার ও স্বপন বাকি ৫ কনস্টেবল রাশেদ, হাসান, রহিম, সাইফুল ও মাসুদকে ক্লোজড করে লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

এদিকে ঘটনার তদন্ত কমিটি গঠন করে রিপোর্ট অনুযায়ী দোষীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন বরিশাল মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার (দক্ষিণ) গোলাম রউফ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নির্যাতনকারীদের তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার (১৩ মার্চ) দুপুরে বরিশাল নগরের দক্ষিণ চকবাজারের পুরাতন বিউটি হলের সামনে ডিবি পুলিশ একটি বাসায় মাদকবিরোধী অভিযান চালায়।

খবর পেয়ে বেসরকারি টেলিভিশনটির ক্যামেরাপারসন সুমন হাসান ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযানের বিষয়ে পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন।

সংবাদকর্মী পরিচয় দিয়ে অভিযান সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে চাইলে ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে যায় এবং বাক-বিতণ্ডায় লিপ্ত হন।

একপর্যায়ে ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশ সদস্যরা মিলে সুমনের উপর চড়াও হয় এবং মারধর করে জামা-কাপড় ছিঁড়ে ফেলে। প্রকাশ্যে ঘটনাটি ঘটায় পুলিশ সদস্যরা সুমনকে জোর করে গাড়িতে তুলে নগরের পলিটেকনিক রোডের ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যায়।

গাড়ির ভেতর ও ডিবি কার্যালয়ে এনেও তার ওপর অমানবিক নির্যাতন চালানো হয় বলে জানিয়েছেন নির্যাতনের শিকার সুমন।
এদিকে সুমনের ওপর নির্যাতনের খবর পেয়ে সংবাদকর্মীরা ডিবি কার্যালয়ে ছুটে যান। সেখানে মেট্রোপলিটনের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) উত্তম কুমার পাল ও উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) গোলাম রউফের উপস্থিতিতে সাংবাদিক নেতারা কথা বলেন।
সুমন জানিয়েছেন, নির্যাতনের সময়ে তার গোপনাঙ্গে মারাত্মক আঘাত করেছেন ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল বাশার।

ঘটনার বর্ননায় বলেন, সুমনের ভাগ্নেকে আটক করা হয়েছে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল বিউটি সিনেমার গলিতে বিষয়টি জানতে যান ডিবিসি নিউজরে ক্যামেরাপার্সন সুমন। তখন সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে হঠাৎ ক্ষেপে যান এসআই আবুল বাশার। তিনি সুমনের ভাগ্নেকে আটকে রেখে মারধর করতে শুরু করেন সুমনকে। এসময়ে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে সন্ত্রাসী স্টাইলে পিটাতে থাকে বলেও দাবী সমুনের।

সুমন জানায়, ডিবিসি চ্যানেলের কার্ড দেখালে মারধরের পরিমান আরও বেড়ে যায়। তিনি বলেন, আমার গোপনাঙ্গে বারবার আঘাত করছিল আর বাশার বলছিল তোরে আজ স্পট ডেট কইরা ফালামু। ঘটনাস্থলে স্থানীয়রা ভিড় করলে দ্রুত সুমনকে গাড়িতে তুলে নেয় এসআই বাশার ও তার সঙ্গীয় ফোর্স। গাড়িতে তুলেও পিটাতে পিটাতে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।ডিবি অফিসে নিয়েও তার হাত-পা বেধে পেটায়।

 বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম

বরিশালে সাংবাদিককে তুলে নিয়ে হত্যাচেষ্টা- পুলিশের ৮ সদস্য ক্লোজড (আপডেট)

মঙ্গলবার, মার্চ ১৩, ২০১৮ ৯:১৯ অপরাহ্ণ

বরিশালে বেসরকারি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের ক্যামেরাপারসনকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের ঘটনায় ৮ পুলিশ সদস্যকে ক্লোজড করা হয়েছে। পাশাপাশি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তে কমিটি গঠন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি) নাছির উদ্দিন মল্লিক।

তিনি জানান, পুরো বিষয়টি তাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ খতিয়ে দেখছেন। সাংবাদিককে নির্যাতনের ঘটনায় ডিবি পুলিশের টিমে থাকা এসআই আবুল বাশারসহ ২ এএসআই আক্তার ও স্বপন বাকি ৫ কনস্টেবল রাশেদ, হাসান, রহিম, সাইফুল ও মাসুদকে ক্লোজড করে লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

এদিকে ঘটনার তদন্ত কমিটি গঠন করে রিপোর্ট অনুযায়ী দোষীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন বরিশাল মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার (দক্ষিণ) গোলাম রউফ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নির্যাতনকারীদের তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার (১৩ মার্চ) দুপুরে বরিশাল নগরের দক্ষিণ চকবাজারের পুরাতন বিউটি হলের সামনে ডিবি পুলিশ একটি বাসায় মাদকবিরোধী অভিযান চালায়।

খবর পেয়ে বেসরকারি টেলিভিশনটির ক্যামেরাপারসন সুমন হাসান ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযানের বিষয়ে পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন।

সংবাদকর্মী পরিচয় দিয়ে অভিযান সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে চাইলে ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে যায় এবং বাক-বিতণ্ডায় লিপ্ত হন।

একপর্যায়ে ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশ সদস্যরা মিলে সুমনের উপর চড়াও হয় এবং মারধর করে জামা-কাপড় ছিঁড়ে ফেলে। প্রকাশ্যে ঘটনাটি ঘটায় পুলিশ সদস্যরা সুমনকে জোর করে গাড়িতে তুলে নগরের পলিটেকনিক রোডের ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যায়।

গাড়ির ভেতর ও ডিবি কার্যালয়ে এনেও তার ওপর অমানবিক নির্যাতন চালানো হয় বলে জানিয়েছেন নির্যাতনের শিকার সুমন।
এদিকে সুমনের ওপর নির্যাতনের খবর পেয়ে সংবাদকর্মীরা ডিবি কার্যালয়ে ছুটে যান। সেখানে মেট্রোপলিটনের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) উত্তম কুমার পাল ও উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) গোলাম রউফের উপস্থিতিতে সাংবাদিক নেতারা কথা বলেন।
সুমন জানিয়েছেন, নির্যাতনের সময়ে তার গোপনাঙ্গে মারাত্মক আঘাত করেছেন ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল বাশার।

ঘটনার বর্ননায় বলেন, সুমনের ভাগ্নেকে আটক করা হয়েছে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল বিউটি সিনেমার গলিতে বিষয়টি জানতে যান ডিবিসি নিউজরে ক্যামেরাপার্সন সুমন। তখন সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে হঠাৎ ক্ষেপে যান এসআই আবুল বাশার। তিনি সুমনের ভাগ্নেকে আটকে রেখে মারধর করতে শুরু করেন সুমনকে। এসময়ে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে সন্ত্রাসী স্টাইলে পিটাতে থাকে বলেও দাবী সমুনের।

সুমন জানায়, ডিবিসি চ্যানেলের কার্ড দেখালে মারধরের পরিমান আরও বেড়ে যায়। তিনি বলেন, আমার গোপনাঙ্গে বারবার আঘাত করছিল আর বাশার বলছিল তোরে আজ স্পট ডেট কইরা ফালামু। ঘটনাস্থলে স্থানীয়রা ভিড় করলে দ্রুত সুমনকে গাড়িতে তুলে নেয় এসআই বাশার ও তার সঙ্গীয় ফোর্স। গাড়িতে তুলেও পিটাতে পিটাতে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।ডিবি অফিসে নিয়েও তার হাত-পা বেধে পেটায়।

সম্পাদক ও প্রকাশক : খন্দকার রাকিব ।
ফকির বাড়ি, ৫৫৪৫৪ বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭২২৩৩৬০২১
ইমেইল : rakibulbsl@gmail.com, barisalcrimenews@gmail.com