বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কমপ্লাস্টিক সার্জারি করেছেন দাউদ ইব্রাহিম - বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম
বৃহস্পতিবার, ২১ জুন, ২০১৮, ৭ আষাঢ়, ১৪২৫, ৮ শাওয়াল, ১৪৩৯, সকাল ১০:৫১

প্রকাশিতঃ মার্চ ১১, ২০১৮ ১:৫২ অপরাহ্ণ
A- A A+ Print

প্লাস্টিক সার্জারি করেছেন দাউদ ইব্রাহিম

দাউদ ইব্রাহিমকে বাগে আনা যতটা কঠিন তার চেয়ে বেশি কঠিন হয়তো তাকে চিনতে পারা। ১৯৯৩ সালের মুম্বাই বিস্ফোরণের অন্যতম এই মোস্ট ওয়ান্টেডকে লোকসভা নির্বাচনের আগে দেশে ফিরিয়ে আনতে চায় নরেন্দ্র মোদি সরকার। কিন্তু দেশে ফিরিয়ে আনতে চাইলেই তো আর হবে না। বরং এ নিয়ে কিছু প্রশ্নতো থেকেই যায়। দাউদকে চেনা যাবে কিনা তা নিয়েই এখন সংশয় দেখা দিয়েছে। গত দেড় দশকের বেশি সময় ধরে লোকচক্ষুর অন্তরালে রয়েছেন দাউদ।

গোয়েন্দাদের একাংশের আশঙ্কা প্লাস্টিক সার্জারি করে নিজের মুখও বদলে ফেলে থাকতে পারে এই ডন। মুম্বাই হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় দশ বছর আগে লিশের হাতে ধরা পড়েন দাউদের ঘনিষ্ঠ আব্দুল কায়েম শেখ। দাউদের ছেলের বিয়েতে আমন্ত্রণ থাকলেও সে সময় করাচি যায়নি আব্দুল কায়েম। পুলিশের কাছে আব্দুল কায়েম জানান, বিয়েতে না গেলেও দুবাইতে একাধিক বার দাউদের সঙ্গে দেখা করেছেন তিনি। তার দাবি, ২০০৭ সাল পর্যন্ত প্লাস্টিক সার্জারি করাননি দাউদ। শুধুমাত্র মোটা গোঁফ ছেটে কমিয়ে ফেলেছেন আর ওজনও কমিয়েছে অনেকটাই।

তবে গত দশ বছরে অনেক কিছুতেই পরিবর্তন এসেছে। দাউদ প্রশ্নে পাকিস্তানের উপর আন্তর্জাতিক চাপ রয়েছে। তাই প্লাস্টিক সার্জারি করার বিষয়টি একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছেন না গোয়েন্দাদের একাংশ। ফলে সংশয় রয়েছে তার নতুন চেহারা নিয়েও।

কেন্দ্রের একটি শীর্ষ সূত্রের মতে, দাউদকে দেশে ফেরাতে সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। মার্কিন প্রশাসনের পাশাপাশি পাকিস্তানের উপরে চাপ বাড়াতে সৌদি আরবের সঙ্গেও আলোচনা চালাচ্ছেন তিনি। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্টমন্ত্রী রাজনাথ সিং জানান, গত চার বছর ধরে আমরা এ ব্যাপারে সক্রিয় রয়েছি। আশা করছি এ কাজে আমরা সফল হব।

 বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম

প্লাস্টিক সার্জারি করেছেন দাউদ ইব্রাহিম

রবিবার, মার্চ ১১, ২০১৮ ১:৫২ অপরাহ্ণ

দাউদ ইব্রাহিমকে বাগে আনা যতটা কঠিন তার চেয়ে বেশি কঠিন হয়তো তাকে চিনতে পারা। ১৯৯৩ সালের মুম্বাই বিস্ফোরণের অন্যতম এই মোস্ট ওয়ান্টেডকে লোকসভা নির্বাচনের আগে দেশে ফিরিয়ে আনতে চায় নরেন্দ্র মোদি সরকার। কিন্তু দেশে ফিরিয়ে আনতে চাইলেই তো আর হবে না। বরং এ নিয়ে কিছু প্রশ্নতো থেকেই যায়। দাউদকে চেনা যাবে কিনা তা নিয়েই এখন সংশয় দেখা দিয়েছে। গত দেড় দশকের বেশি সময় ধরে লোকচক্ষুর অন্তরালে রয়েছেন দাউদ।

গোয়েন্দাদের একাংশের আশঙ্কা প্লাস্টিক সার্জারি করে নিজের মুখও বদলে ফেলে থাকতে পারে এই ডন। মুম্বাই হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় দশ বছর আগে লিশের হাতে ধরা পড়েন দাউদের ঘনিষ্ঠ আব্দুল কায়েম শেখ। দাউদের ছেলের বিয়েতে আমন্ত্রণ থাকলেও সে সময় করাচি যায়নি আব্দুল কায়েম। পুলিশের কাছে আব্দুল কায়েম জানান, বিয়েতে না গেলেও দুবাইতে একাধিক বার দাউদের সঙ্গে দেখা করেছেন তিনি। তার দাবি, ২০০৭ সাল পর্যন্ত প্লাস্টিক সার্জারি করাননি দাউদ। শুধুমাত্র মোটা গোঁফ ছেটে কমিয়ে ফেলেছেন আর ওজনও কমিয়েছে অনেকটাই।

তবে গত দশ বছরে অনেক কিছুতেই পরিবর্তন এসেছে। দাউদ প্রশ্নে পাকিস্তানের উপর আন্তর্জাতিক চাপ রয়েছে। তাই প্লাস্টিক সার্জারি করার বিষয়টি একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছেন না গোয়েন্দাদের একাংশ। ফলে সংশয় রয়েছে তার নতুন চেহারা নিয়েও।

কেন্দ্রের একটি শীর্ষ সূত্রের মতে, দাউদকে দেশে ফেরাতে সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। মার্কিন প্রশাসনের পাশাপাশি পাকিস্তানের উপরে চাপ বাড়াতে সৌদি আরবের সঙ্গেও আলোচনা চালাচ্ছেন তিনি। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্টমন্ত্রী রাজনাথ সিং জানান, গত চার বছর ধরে আমরা এ ব্যাপারে সক্রিয় রয়েছি। আশা করছি এ কাজে আমরা সফল হব।

সম্পাদক ও প্রকাশক : খন্দকার রাকিব ।
ফকির বাড়ি, ৫৫৪৫৪ বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭২২৩৩৬০২১
ইমেইল : rakibulbsl@gmail.com, barisalcrimenews@gmail.com