বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কমকর্মকতা-কর্মচারীদের আন্দোলনে ১৭ দিন ধরে অচল বরিশাল সিটি করপোরেশন - বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম
বৃহস্পতিবার, ২১ জুন, ২০১৮, ৭ আষাঢ়, ১৪২৫, ৮ শাওয়াল, ১৪৩৯, সকাল ১০:৫৪

প্রকাশিতঃ মার্চ ০৬, ২০১৮ ৭:৫৩ অপরাহ্ণ
A- A A+ Print

কর্মকতা-কর্মচারীদের আন্দোলনে ১৭ দিন ধরে অচল বরিশাল সিটি করপোরেশন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ১৭ দিন ধরে অচল অবস্থা বিরাজ করছে বরিশাল সিটি করপোরেশন (বিসিসি)। বিসিসি’র কর্মকর্তা কর্মচারীদের বকেয়া বেতন ও প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থ বরাদ্দের দাবিতে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। মঙ্গলবারও আন্দোলনকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সকাল থেকে সিটি মেয়রের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে থেমে থেমে বিক্ষোভ করে। এছাড়া তারা বিসিসি’র বিভিন্ন দপ্তরে গিয়ে কক্ষের ভেতরে অবস্থান নেওয়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বের করে দেয়। দীর্ঘদিন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সকল দাপ্তরিক কাজকর্ম বন্ধ থাকায় পুরোপুরি অচল হয়ে পড়েছে নগর ভবন। সাধারণ মানুষ বিভিন্ন নাগরিক সেবা পেতে নগর ভবনে গিয়ে কাজ সম্পন্ন করতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন নিরাশ হয়ে। বিসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, সিটি মেয়র বলেছেন তারা প্রতি মাসে দুই মাসের বেতন দিয়ে দেবেন। কিন্তু তাতেও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রাজি নয়। এ বিষয়ে অন্য কোন সুযোগ নেই তাদের। বিসিসি’র পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা ও আন্দোলনকারীদের অন্যতম নেতা দীপক লাল মৃধা জানান, বিসিসি’র স্থায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সব শেষ জানুয়ারি মাসে গত বছরের আগস্ট মাসের বেতন পেয়েছেন। সে হিসেবে এখনই তাদের ৫ মাসের বেতন বকেয়া। অপরদিকে দৈনন্দিন মজুরি ভিত্তিক কর্মচারীদের ৪ মাসের বেতন বকেয়া হয়েছে। বেতন বকেয়া পড়ায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে। বকেয়া বেতন এবং প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থ বরাদ্দ না পাওয়া পর্যন্ত কাজে ফিরবেন না তারা।

 বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম

কর্মকতা-কর্মচারীদের আন্দোলনে ১৭ দিন ধরে অচল বরিশাল সিটি করপোরেশন

মঙ্গলবার, মার্চ ৬, ২০১৮ ৭:৫৩ অপরাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ১৭ দিন ধরে অচল অবস্থা বিরাজ করছে বরিশাল সিটি করপোরেশন (বিসিসি)। বিসিসি’র কর্মকর্তা কর্মচারীদের বকেয়া বেতন ও প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থ বরাদ্দের দাবিতে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। মঙ্গলবারও আন্দোলনকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সকাল থেকে সিটি মেয়রের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে থেমে থেমে বিক্ষোভ করে। এছাড়া তারা বিসিসি’র বিভিন্ন দপ্তরে গিয়ে কক্ষের ভেতরে অবস্থান নেওয়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বের করে দেয়। দীর্ঘদিন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সকল দাপ্তরিক কাজকর্ম বন্ধ থাকায় পুরোপুরি অচল হয়ে পড়েছে নগর ভবন। সাধারণ মানুষ বিভিন্ন নাগরিক সেবা পেতে নগর ভবনে গিয়ে কাজ সম্পন্ন করতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন নিরাশ হয়ে। বিসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, সিটি মেয়র বলেছেন তারা প্রতি মাসে দুই মাসের বেতন দিয়ে দেবেন। কিন্তু তাতেও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রাজি নয়। এ বিষয়ে অন্য কোন সুযোগ নেই তাদের। বিসিসি’র পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা ও আন্দোলনকারীদের অন্যতম নেতা দীপক লাল মৃধা জানান, বিসিসি’র স্থায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সব শেষ জানুয়ারি মাসে গত বছরের আগস্ট মাসের বেতন পেয়েছেন। সে হিসেবে এখনই তাদের ৫ মাসের বেতন বকেয়া। অপরদিকে দৈনন্দিন মজুরি ভিত্তিক কর্মচারীদের ৪ মাসের বেতন বকেয়া হয়েছে। বেতন বকেয়া পড়ায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে। বকেয়া বেতন এবং প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থ বরাদ্দ না পাওয়া পর্যন্ত কাজে ফিরবেন না তারা।

সম্পাদক ও প্রকাশক : খন্দকার রাকিব ।
ফকির বাড়ি, ৫৫৪৫৪ বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭২২৩৩৬০২১
ইমেইল : rakibulbsl@gmail.com, barisalcrimenews@gmail.com